শনিবার, ১৩ Jul ২০২৪, ০৭:৫০ অপরাহ্ন

News Headline :
রনি শেখের পাবনা জেলা ছাত্রদলের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক পদ থেকে অব্যহতি পাবনা ঈশ্বরদীতে বলৎকারে ব্যার্থ হয়ে শিশুকে গলাটিপে হত্যা আটক ১ পাবনা সদর উপজেলা পরিষদের প্রথম সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত শিবপুরে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উদ্বোধন রাজশাহীতে কোরবানিযোগ্য পশু সাড়ে ৪ লাখের বেশি দাম চড়া হবে নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দুই ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী নারী পাবনার সুজানগরে আনারস প্রার্থীর ভোট না করায় মোটরসাইকেল সমর্থকদের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর লুটপাট পাবনা গণপূর্ত অধিদপ্তর কয়েককোটি টাকার বিনিময়ে ২য় দরদাতা বালিশকান্ডের হোতাকে কাজ দেওয়ার অভিযোগ র‌্যাব কুষ্টিয়া ক্যাম্প এর অভিযানে ১টি দেশীয় ওয়ান শুটারগান উদ্ধার গাজীপুরে তিন উপজেলায় নির্বাচিত চেয়ারম্যানরা হলেন

বিজ্ঞানের ব্যবহারিক প্রয়োগের প্লাটফর্ম ‘জিরো আইডিয়া’

Reading Time: 2 minutes

মুরাদ হোসেন, হাবিপ্রবি দিনাজপুর:
বিজ্ঞানের বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষা ক্যামেরায় ধারণ করে নতুন নতুন কন্টেন্ট উপহার দিচ্ছেন বিজ্ঞান প্রিয় মানুষদের। সেখান থেকে আবার প্রয়োজনীয় কন্টেন্টটি দেখে নিজের প্রয়োজনে প্রয়োগ করছেন অনেকেই।”লবন এবং পেঁয়াজ থেকে কিভাবে ইলেক্ট্রিসিটি তৈরী হয়; নিজেই কিভাবে মিনি ঝালাই মেশিন তৈরি করা যায়; গরম বরফ; প্লাস্টিক থেকে পেট্রোল তৈরি; হাইড্রোজেন ও অক্সিজেন গ্যাস তৈরি” এমনই সব চমকপ্রদ কন্টেন্ট পাওয়া যাবে ‘ZERO IDEA’ নামের একটি ফেসবুক পেজ এবং ইউটিউবে। ২০১৮ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর থেকে এরকমই বিজ্ঞান ভিত্তিক শত শত কন্টেন্ট নিয়মিত উপহার দিচ্ছেন দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের সম্মান চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী জাকির হোসেন। দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার বাবা দুলাল মিয়া, মা জাহানারা বেগমের প্রথম সন্তান তিনি। তার আরো দুই ভাই-বোন রয়েছে। নিজের অধ্যয়নের বিষয়বস্তু এবং ভালোলাগার জায়গা থেকে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন ডিজিটাল এ কন্টেন্ট ক্রিয়েটর। তার কন্টেন্ট গুলোর সবগুলোই নিজে এডিট করে থাকেন। কন্টেন্টগুলোর বেশিরভাগই ৫ থেকে দশ মিনিট দীর্ঘ। করেছেন বেশ কিছু শর্টস ভিডিও।
‘ZERO IDEA’ নামের ওই ফেসবুক পেজে বর্তমান ফলোয়ার সংখ্যা এক লাখেরও বেশি।
বিজ্ঞানের পরীক্ষা-নিরীক্ষা, বিশেষ করে রাসায়নিক পদার্থ সম্পৃক্ত করে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে এ পেজটি। যেখানে সর্বোচ্চ বিয়াল্লিশ লক্ষাধিক মানুষ কন্টেন্টগুলো দেখেছেন। ইউটিউব চ্যানেলটিতেও লাখ ছুঁইছুঁই সাবস্ক্রাইব। চ্যানেলটি ২০১৮ সাল থেকে পরিচালনা করছেন তিনি।
স্থানীয় সায়েন্টিফিক স্টোর থেকে বেশিরভাগ সংগ্রহ করা অ্যাপারেটাস ব্যবহার করেই অনায়াসে করেন এসব পরীক্ষা নিরীক্ষা। প্রথম দিকে ইউটিউব থেকে সামান্য অর্থ পেতেন তিনি। যা দিয়ে পরবর্তী কন্টেন্ট তৈরি করতেন। অর্থ জমিয়ে ডিএসএলআর ক্যামেরা কিনে নিজের শখও মিটিয়েছেন এই কন্টেন্ট ক্রিয়েটর। জাকির হোসেনের বেশিরভাগ কন্টেন্ট খোলা মাঠে বা কৃষি জমিতে ধারণ করা হয়ে থাকে। এর কারণ জানতে চাইলে তিনি জানান, সম্ভাব্য বিপজ্জনক রাসায়নিক বিক্রিয়া করার জন্য তার সীমিত অভ্যন্তরীণ সুবিধা রয়েছে। তাই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে তিনি খোলা জায়গা বেছে নেন। এছাড়াও, তিনি প্রয়োজনে গ্লাভস এবং সুরক্ষা গগলস পরেন এবং পরীক্ষায় জড়িত সম্ভাব্য বিপদ সম্পর্কে দর্শকদের সতর্ক করেন।
জাকির হোসেন বলেন,  আমাদের চারপাশে অহরহ ঘটে যাচ্ছে কত কিছু। যার মধ্যে বিজ্ঞান জড়িত। অথচ আমরা তা বুঝতেই পারিনা। সেগুলোকেই সবার সামনে তুলে ধরি। বিজ্ঞান যেমন সত্য, তেমনি মজার বিষয়।জাকির হোসেন তার এ কাজে সহপাঠী- বন্ধুদের সহায়তা নিয়ে থাকেন।  তার বন্ধুরাও সর্বাত্মক সহযোগিতা করে থাকেন। ফলে কঠিন পরীক্ষা গুলো অনায়াসে করতে পারছেন তিনি।
তবে পড়ালেখা শেষে রসায়ন সম্পর্কিত সেক্টরে চাকরির পাশাপাশি একাধিক মানুষের কর্মসংস্থান করে দেওয়ার ইচ্ছা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। ভবিষ্যতে আরো ভালো এবং সময়োপযোগী কন্টেন্ট উপহার দিতে পারবেন এমনটাই প্রত্যাশা জাকির হোসেনের।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024 DailySaraBangla24
Design & Developed BY Hostitbd.Com