সোমবার, ১৭ Jun ২০২৪, ০৭:১৫ অপরাহ্ন

News Headline :
শিবপুরে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উদ্বোধন রাজশাহীতে কোরবানিযোগ্য পশু সাড়ে ৪ লাখের বেশি দাম চড়া হবে নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দুই ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী নারী পাবনার সুজানগরে আনারস প্রার্থীর ভোট না করায় মোটরসাইকেল সমর্থকদের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর লুটপাট পাবনা গণপূর্ত অধিদপ্তর কয়েককোটি টাকার বিনিময়ে ২য় দরদাতা বালিশকান্ডের হোতাকে কাজ দেওয়ার অভিযোগ র‌্যাব কুষ্টিয়া ক্যাম্প এর অভিযানে ১টি দেশীয় ওয়ান শুটারগান উদ্ধার গাজীপুরে তিন উপজেলায় নির্বাচিত চেয়ারম্যানরা হলেন পবায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার পাবনায় অগ্রনী ব্যাংক কাশিনাথপুর শাখার ভোল্ট থেকে ১০কোটি টাকা লোপাট আটক ৩ জড়িত উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ পাবনার ঈশ্বরদীতে সর্বোচ্চ ৪২.৪ ডিগ্রি তাপমাত্রার রেকর্ড

স্বাস্থ্যবিধি উধাও মাস্ক ছাড়াই সর্বত্র চলছে মানুষজন ॥ বাড়ছে সংক্রমণ

Reading Time: 2 minutes

হারুন উর রমিদ সোহেল,রংপুর
রংপুর নগরীসহ বিভাগ জুড়ে বাজার, শপিং মল, রাস্তা-ঘাটে চলচলরত মানুষের মাঝে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কোনো প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। সর্বত্র মাস্ক ছাড়াই মানুষজন চলাচল করছে। এতে যেন উধাও হয়ে গেছে স্বাস্থ্যবিধি। এর ফলে করোনার সংক্রমণ আরও ছড়িয়ে পড়ছে। অন্যদিকে করোনা পরীক্ষা করাতে আগ্রহ হারাচ্ছে সাধারণ মানুষ। গত ২৪ ঘণ্টায় রংপুর বিভাগের ৮ জেলার মধ্যে ৭ জেলাতে কেউ করোনা পরীক্ষা করাতে আসেনি। একমাত্র নীলফামারী জেলায় করোনা পরীক্ষা করিয়েছেন ৬ জন। এখানে কারও দেহে করোনা শনাক্ত হয়নি। ফলে শনিবার সকাল পর্যন্ত বিভাগে শনাক্তের হার ছিল শূন্য। কোনো জেলায় মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি। এছাড়া বিভাগের হাসপাতালগুলো রোগীর সংখ্যা প্রায় শূন্যের কোঠায় এসেছে। আট জেলার মধ্যে রংপুর ও দিনাজপুর হাসপাতালে একজন করে মোট দুইজন করোনা আক্রান্ত রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন। বিভাগের অন্য ৬ জেলার হাসপাতালে কোনো করোনা আক্রান্ত রোগী নেই। রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য অফিস সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নীলফামারী জেলায় ৬ জনের করোনা পরীক্ষা করা হলেও কারও দেহে করোনা শনাক্ত হয়নি। ফলে শনাক্তের হার শূন্যের কোঠায়। এর আগে গত বৃহস্পতিবার বিভাগের ৭ জেলায় কেউ করোনা পরীক্ষা করাতে আসেননি। ওই দিন নীলফামারীতে ৩৫ জনের পরীক্ষা করে কারও দেহে করোনা শনাক্ত হয়নি। এপর্যন্ত ৩ লাখ ৫৩ হাজার ৫০৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৬৪ হাজার ৮৯৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। সুস্থ হয়েছেন ৬৩ হাজার ৪৯৫ জন। এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৯১ জনের। রংপুর বিভাগে করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে দিনাজপুরে। এ জেলায় সর্বোচ্চ ৩৪১ জন মারা গেছেন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩০৪ জনের মৃত্যু হয়েছে রংপুর জেলায় । পঞ্চগড়ে এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৮৫ জন, নীলফামারীতে ৯২ জন, লালমনিরহাটে মারা গেছেন ৭৬ জন, ঠাকুরগাঁওয়ে মারা গেছেন ২৫৯ জন, গাইবান্ধা জেলায় ৬৫ জন, কুড়িগ্রামে মারা গেছেন ৬৯ জন। এদিকে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, অনেকে জ্বর-সর্দিজনিত কারণে মারা যাচ্ছেন।তাদের অনেকেই হয়তো করোনা আক্রান্ত ছিলেন। কিন্তু পরীক্ষার না করার কারণে তাদের করোনা শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। সতর্ক না হলে এভাবেই করোনা ছড়িয়ে পড়তে পারে। জ্বর-সর্দি হয়েছে এমন মনে করে অনেক রোগী করোনা পরীক্ষা করাচ্ছেন না। এটি ভাল লক্ষণ নয়।
এব্যাপারে রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য ভারপ্রাপ্ত পরিচালক হাবিবুর রহমান বলেন, করোনা পরীক্ষা করাতে মানুষের আগ্রহ কমে গেছে। তিনি জ্বর সর্দি হলে জনগণকে করোনা পরীক্ষা করার আহবান জানান। এছাড়াও সকলকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার পরামর্শ দেন।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024 DailySaraBangla24
Design & Developed BY Hostitbd.Com