সোমবার, ২২ Jul ২০২৪, ১১:৫৩ অপরাহ্ন

News Headline :
রনি শেখের পাবনা জেলা ছাত্রদলের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক পদ থেকে অব্যহতি পাবনা ঈশ্বরদীতে বলৎকারে ব্যার্থ হয়ে শিশুকে গলাটিপে হত্যা আটক ১ পাবনা সদর উপজেলা পরিষদের প্রথম সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত শিবপুরে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উদ্বোধন রাজশাহীতে কোরবানিযোগ্য পশু সাড়ে ৪ লাখের বেশি দাম চড়া হবে নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দুই ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী নারী পাবনার সুজানগরে আনারস প্রার্থীর ভোট না করায় মোটরসাইকেল সমর্থকদের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর লুটপাট পাবনা গণপূর্ত অধিদপ্তর কয়েককোটি টাকার বিনিময়ে ২য় দরদাতা বালিশকান্ডের হোতাকে কাজ দেওয়ার অভিযোগ র‌্যাব কুষ্টিয়া ক্যাম্প এর অভিযানে ১টি দেশীয় ওয়ান শুটারগান উদ্ধার গাজীপুরে তিন উপজেলায় নির্বাচিত চেয়ারম্যানরা হলেন

আইন উপেক্ষা করে শিক্ষকতা ও বাল্য বিবাহের অভিযোগ গোদাগাড়ীর কাজী আব্দুল জাব্বারেব বিরুদ্ধে

Reading Time: < 1 minute

মাসুদ রানা, রাব্বানী রাজশাহী:

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার মহিষাল বাড়ী মহিলা ডিগ্রী কলেজের শিক্ষক মোঃ আব্দুল জাব্বার। তবে তিনি আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে শিক্ষকতার পাশাপাশি কাজী পেশা এবং বাল্য বিবাহের অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। তিনি একই থানার সুলতানগঞ্জের বাসিন্দা।
জানা গেছে, কাজী মোঃ আব্দুল জাব্বার। তিনি মহিষালবাড়ীর মিথ্যা ঠিকানা দিয়ে রাজশাহীর গোদাগাড়ী পৌরসভার ১,২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের নিকাহ রেজিস্ট্রার হিসেবে কাজ করছেন। ১৯৯৪ সলে তিনি চাপাইনবাবগঞ্জ জেলার সদর থানার অনুপনগর গ্রামের ঠিকানা দেখিয়ে আলাতুলি, চর-অনুপনগর, চর-বাগডাঙ্গা ও শাহজাহানপুর ইউনিয়নের নিকাহ রেজিস্ট্রার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে একধিক স্থানীয়রা জানায়, গোদাগাড়ী থানার জাহানাবাদ বেড়াপাড়া গ্রামে বাল্য বিবাহ দিয়েছেন কাজী জাব্বার। ওই বিয়ের ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, কাজী আব্দুল জাব্বার উপস্থিত লোকজনের উদ্দেশ্যে বলছেন আপনারা অবগত আছেন কণ্যার বয়স হয়নি। এরপর একটি নিকাহনামা ফর্মে ছেলে-মেয়ের ও স্বাক্ষীদের নাম ঠিকানা লিখে নিজেই বিবাহ পড়াচ্ছেন। কিন্তু বিবাহের রেজিস্ট্রার বহিতে ছেলে-মেয়ে ও স্বাক্ষীদের সহি নিচ্ছেন না। মুঠো ফোনে জানতে চাইলে জেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ নাসির উদ্দিন বলেন, বে-সরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (স্কুল ও কলেজ) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা ২০১৮(২৩ নভেম্বর ২০২০ পর্যন্ত সংশোধিত) এর অনুচ্ছেদ ১১.১০(ক) মোতাবেক এমপিওভ‚ক্ত কোন শিক্ষক কর্মচারী একই সাথে একাধিক কোন পদে/ চাকুরীতে বা অর্থিক লাভজনক কোন পদে নিয়োজিত থাকতে পারবেন না। শিক্ষকতার পাশাপাশি কাজী পেশায় যুক্ত থাকার অভিযোগ পেলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
রাজশাহী জেলা রেজিস্ট্রার মোঃ মতিউর রহমান বলেন, সহকারী কাজীকে দিয়ে বিয়ে পড়ানো যাবে না। অনেক কাজীরা এই ধরণের অনিয়ম করছে বলে জেনেছি। বাল্য বিবাহের তথ্য প্রমান পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলেও জানান তিনি।
তিনি আরও বলেন, বাল্য বিবাহ সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। কোন কাজীর বাল্য বিবাহের সাথে সম্পৃক্ততা থাকলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান জেলা রেজিস্ট্রার।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024 DailySaraBangla24
Design & Developed BY Hostitbd.Com