মঙ্গলবার, ১৮ Jun ২০২৪, ১১:৫০ অপরাহ্ন

News Headline :
শিবপুরে জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহ উদ্বোধন রাজশাহীতে কোরবানিযোগ্য পশু সাড়ে ৪ লাখের বেশি দাম চড়া হবে নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দুই ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী নারী পাবনার সুজানগরে আনারস প্রার্থীর ভোট না করায় মোটরসাইকেল সমর্থকদের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর লুটপাট পাবনা গণপূর্ত অধিদপ্তর কয়েককোটি টাকার বিনিময়ে ২য় দরদাতা বালিশকান্ডের হোতাকে কাজ দেওয়ার অভিযোগ র‌্যাব কুষ্টিয়া ক্যাম্প এর অভিযানে ১টি দেশীয় ওয়ান শুটারগান উদ্ধার গাজীপুরে তিন উপজেলায় নির্বাচিত চেয়ারম্যানরা হলেন পবায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার পাবনায় অগ্রনী ব্যাংক কাশিনাথপুর শাখার ভোল্ট থেকে ১০কোটি টাকা লোপাট আটক ৩ জড়িত উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ পাবনার ঈশ্বরদীতে সর্বোচ্চ ৪২.৪ ডিগ্রি তাপমাত্রার রেকর্ড

এসআই বিরুদ্ধে গ্রাম পুলিশকে মারধরের অভিযোগ

Reading Time: 2 minutes

কামরুল হাসান,ময়মনসিংহ:
ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার জাটিয়া ইউপির ৯নং ওয়ার্ডের পানান এলাকার এক গ্রামপুলিশ সদস্যকে মারধরের অভিযোগে উপপরিদর্শক (এসআই) হোসাইন মোহাম্মদ আরাফাতকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। সোমবার (২৫ এপ্রিল) রাতে বিষয়টি পুলিশের পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার জাটিয়া ইউনিয়নে গ্রামপুলিশ আবু তাহের সোমবার থানায় হাজিরা দিতে যান। প্রতি সোমবার থানায় এসে তাদের সাপ্তাহিক হাজিরা দিতে হয়। এরই ধারাবাহিকতায় তিনি অন্য গ্রামপুলিশদের সাথে আবু তাহেরও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, এসআই হোসাইন মোহাম্মদ আরাফাত জাটিয়া ইউনিয়নের নতুন দায়িত্ব পান। তিনি সোমবার দুপুরে থানা চত্বরে সাপ্তাহিক হাজিরা গ্রহণ করছিলেন। তিনি তখন জানতে চান জাটিয়া ইউনিয়ন থেকে কে এসেছে জানতে চান। তখন আবু তাহের আমি আসছি স্যার বলে তার কাছে যান। এ সময় এসআই আরাফাত আগের একটি ঘটনার জেরে তার ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন।
একটি মামলার তদন্তের জন্য তাহেরের কাছে সহযোগিতা চেয়ে না পাওয়ায় জামার কলার ধরে থানার ভেতরে নিয়ে লাঠি দিয়ে মারধর করেন। একই সঙ্গে তাহেরের মোবাইল ফোনও নিয়ে নেন এসআই আরাফাত। চাকরি খেয়ে ফেলারও হুমকি দেন। এ অবস্থায় বিষয়টি নিয়ে প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেন আবু তাহের।
জাটিয়া ইউনিয়নের দফাদার মোহাম্মদ আবদুল্লাহ জানান, একটি মেয়ে অপহরণের অভিযোগ দেওয়ার পর সে ঘটনায় সুটিয়া বাজারে এসআই আরাফাতের সঙ্গে দেখা করার কথা ছিল তাহেরের। কিন্তু আবু তাহের দেখা করেনি। এই জন্য এসআই তাকে মারধর করেছে। থানার ভেতরে নিয়ে আবু তাহেরকে মারধর করা হয়েছে। তারা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চান।
এদিকে এসআই মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, একটি মামলার তদন্তের জন্য তাকে তাকে ডেকেছিলাম। সেখানে আমাকে আবু তাহের প্রায় তিন ঘন্টা দাঁড় করিয়ে রেখে সে আর আসেনি, এমনকি ফোনটাও রিসিভ করেনি। শুধু এটাই নয় তাহের পুলিশকে কোন কাজে সহযোগীতা করে না। এনিয়ে আমার একটু মেজাজ খারাপ ছিল তা সত্য। তাই তাকে একটু ধমক দিয়েছি, কিন্তু মারধর করার ঘটনা ঘটেনি।
ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হাফিজা জেসমিন জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর ওসিকে তদন্ত করে জানাতে বলা হয়েছে। এসআইয়ের কাছেও বিষয়টি জানতে চাওয়া হয়েছে। তিনি স্বীকার করেননি। জানানো হয়েছে, বেশ কিছু কারণে এলাকায় গেলে ওই গ্রাম পুলিশকে পাওয়া যেতো না।
ঈশ্বরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল কাদের মিয়া জানান, এ ঘটনায় থানা থেকে এসআই হোসাইন মোহাম্মদ আরাফাতকে প্রত্যাহার করে ময়মনসিংহ পুলিশ লাইনন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2024 DailySaraBangla24
Design & Developed BY Hostitbd.Com